বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০২:৪১ অপরাহ্ন

সখিপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র দল বদলে যোগ দিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগে

  • আপডেট : রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধি;

টাঙ্গাইলের সখিপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র সানোয়ার হোসেন সজীব আবারো কৃষক শ্রমিক জনতা লীগে যোগ দিয়েছেন। আজ শনিবার (১৮ ফ্রেবুয়ারি) বিকেলে টাঙ্গাইল শহীদ মিনার চত্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে দলটির সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বিরোত্তম এর গলায় গামছা পরিয়ে দিয়ে তিনি ওই দলে যোগ দেন। পরে কাদের সিদ্দিকী সানোয়ার হোসেনকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। এ নিয়ে সানোয়ার হোসেন তিনবার দল বদল করলেন।

সানোয়ার হোসেন সজীব সখিপুর থেকে ১০টি বাস, ১০টি মাইক্রোবাস, প্রাইভেট কার, ৫০টি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও শতাধিক মোটরসাইকেল বহর নিয়ে টাঙ্গাইল শহরের ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সানোয়ার হোসেন সজীব ১৯৯৩ সালে সখিপুর শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়ে ছাত্ররাজনীতি শুরু করেন। এরপর অল্প সময়ের জন্য উপজেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক পদেও নাম লিখিয়েছিলেন। ১৯৯৯ সালে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী আওয়ামী লীগ থেকে সরে গিয়ে নতুন দল কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ গঠন করেন। সানোয়ার হোসেন সজীব ওই দলে যোগ দিয়ে জেলা কমিটির যুববিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন। তবে ২০১১ সালের ২৬ মে তিনি কাদের সিদ্দিকীর দল ছেড়ে দিয়ে বিএনপিতে যোগ দেন। এরপর ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তিনি বিএনপি থেকে বহিষ্কার হন। এর প্রায় আট বছর পর সানোয়ার হোসেন সজীব আবার কাদের সিদ্দিকীর দলে ফিরে এলেন।

জানতে চাইলে এ বিষয়ে সানোয়ার হোসেন বলেন,‘বিএনপিতে যোগ দেওয়া ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল। আগামী দিনগুলো আমি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে থেকেই মানুষের সেবা করতে চাই। এ ছাড়া আমার অনুসারী হাজার খানেকের বেশি লোক স্বতঃস্ফূর্তভাবে আমার সঙ্গে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগে যোগ দিয়েছেন।’

টাঙ্গাইল শহীদ মিনারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, টাঙ্গাইল জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবদুল হালিম সরকার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবু সালেক হিটলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সমর্থনেই সানোয়ার সখিপুর পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচিত হন। তবে মেয়র থাকাকালে দলের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব সৃষ্টি হতে থাকে। একপর্যায়ে ২০১১ সালের ২৬ মে তিনি কাদের সিদ্দিকীর দল ছেড়ে দিয়ে বিএনপিতে যোগ দেন। তবে বিএনপি যোগ দেওয়ার পরও দলীয় কোনো পদ পাননি সানোয়ার হোসেন সজীব । ২০১৫ সালে বিএনপি থেকে বহিষ্কারের পর সানোয়ার হোসেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দুবার মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে কয়েক বছর ধরে সানোয়ার আওয়ামী লীগে যোগদানের চেষ্টা করেছিলেন বলে গুঞ্জন উঠেছিল। তবে সম্প্রতি কাদের সিদ্দিকী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করার পর কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ বেশ চাঙা হয়ে উঠেছে। এমন সময় সানোয়ার হোসেন আবার কৃষক শ্রমিক জনতা লীগেই যোগ দিলেন।

এ যোগদান বিষয়ে উপজেলা বিএনপির প্রতিবাদ

এদিকে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বিএনপি নেতা’ ও সাবেক মেয়র সানোয়ার হোসেন তাঁর অনুসারীদের নিয়ে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগে যোগ দিচ্ছেন।

এই বিবৃতির প্রতিবাদ করে উপজেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান সাজু ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল বাসেত এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সাবেক মেয়র সানোয়ার হোসেন ২০১১ সালে বিএনপিতে যোগ দিলেও তিনি কোনো পদে ছিলেন না। আবার দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাঁকে সাত বছর আগে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। অতএব সানোয়ার হোসেন এখন আর বিএনপির নেতা বা কর্মী নন। বিএনপি থেকে তিনি যোগ দিচ্ছেন এ কথা সঠিক নয়।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরো খবর

Office : Sakhipur,Tangail,Bngkadesh. Mobile : 01717338188

Email : acottorerronangon@gmail.com

© All rights reserved © 2021 Ten Theme